January 27, 2022, 11:02 am

শিরোনাম :
নিয়োগের চূড়ান্ত সুপারিশপত্র পেলেন ৩৪ হাজার ৭৩ জন শিক্ষক মুন্সীগঞ্জ‌ে মিরকা‌দিম পৌরবাসীরা কি স্বাস্থ্য সম্মত গরুর মাংস খাচ্ছে? আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা ও গণঅভ্যুত্থান ঈদগাঁওতে ২৫ লিটার দেশীয় চোলাই মদসহ আটক-২ জ্বালানি থেকে বাড়তি টাকা তুলে সড়ক সংস্কার করা হবে নাসিকে ভোটযুদ্ধ আজ ॥ নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা গোটা নির্বাচনী এলাকা বাংলাদেশ থেকে দ্বিগুণ ইন্টারনেট ব্যান্ডউইডথ নেবে ভারত হটলাইনে চার মিনিটেই পর্চা-মৌজা ম্যাপের আবেদন শৈলকুপায় সামাজিক আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে যুবকে পিটিয়ে হত্যা নির্বাচনী সহিংসতায় আহত ব্যক্তির মৃত্যু ঝিনাইদহের শৈলকুপায় নির্বাচনি সহিংসতায় নিহত ৬
কক্সবাজারের ইয়াবা কারবারি জিয়া বন্দুকযুদ্ধে নিহত

কক্সবাজারের ইয়াবা কারবারি জিয়া বন্দুকযুদ্ধে নিহত

সেলিম উদ্দীন,কক্সবাজার : জানে বাঁচতে তাবলীগ জামাতের চিল্লায় গিয়েও শেষ রক্ষা হলো না ইয়াবা কারবারে অভিযুক্ত কক্সবাজারের টেকনাফের জিয়াউর রহমানের (৩৪)।
টেকনাফের মেরিন ড্রাইভ সড়কের পাশ থেকে জিয়ার গুলিবিদ্ধ মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রোববার ভোরে তার মরদেহ পাওয়া যায়। ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশী পিস্তল, ২১ রাউন্ড গুলি ও ২০ হাজার পিস ইয়াবা জব্দ করা হয়েছে। গোলাগুলিতে তিন পুলিশ সদস্যও আহত হয়েছে বলে দাবি করেছেন টেকনাফ থানার ওসি প্রদীপ দাশ। নিহত জিয়াউর রহমান কক্সবাজারের টেকনাফ সদর ইউনিয়নের নাজিরপাড়ার হাজি নুরুল ইসলামের ছেলে এবং তিনি ৩ সন্তানের জনক।
টেকনাফ থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ জানান, রোববার (২৫ নভেম্বর) ভোররাতে মেরিন ড্রাইভ সড়ক দিয়ে ইয়াবার চালান পাচার হচ্ছে খবর পেয়ে থানা পুলিশের একটি দল সড়কের নোয়াখালীপাড়া এলাকায় অবস্থান নেয়। এসময় পুলিশের উপস্থিতি ঠের পেয়ে ইয়াবা কারবারিরা গুলি ছুড়ে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও গুলি চালায়। কিছুক্ষণ পর ইয়াবা কারবারিরা পিছু হটলে ঘটনা স্থলে গুলিবিদ্ধ একটি দেহ পাওয়া যায়। পাশে একটি বিদেশী পিস্তল, ২১ রাউন্ড গুলি ও ২০ হাজার ইয়াবাও পাওয়া যায়। এসময় থানা পুলিশের এসআই শরীফুল (৩৫), কনস্টেবল ছোটন দাশ (২৩) ও মেহেদী হাসান (২১) আহত হয়। আহত পুলিশ ও গুলিবিদ্ধ ব্যক্তিকে হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নেয়া হয়। সেখানে গুলিবিদ্ধকে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করে। মরদেহটি স্থানীয়রা টেকনাফ সদর ইউনিয়নের নাজির পাড়ার হাজি নুরুল ইসলামের ছেলে জিয়াউর রহমান (৩৪) বলে সনাক্ত করে। ওসি আরো জানান, আটক ব্যক্তি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তালিকাভূক্ত ইয়াবা কারবারী ও একাধিক মামলার আসামী। তার মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নেয়া হচ্ছে। অপরদিকে, নিহত জিয়াউর রহমানের পরিবারের দাবী, গত ২০ সেপ্টেম্বর জিয়া তাবলীগ জামাতে ৩ মাসের জন্য চিল্লায় গমন করেন। গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ার একটি মসজিদের তাবলীগ জামাত হতে পুলিশ পরিচয়ে সাদাপোষাকধারী কিছু লোক তাকে গত শুক্রবার রাতে তুলে নিয়ে যায়। এরপর থেকে তিনি নিখোঁজ ছিলেন। এরপর তাবলীগের অন্য সাথীরা স্থানীয় থানায় গিয়ে বিষয়টি অবগত করেন বলে জানান জিয়াউর রহমানের মামা নুর কালাম নুরু। তখন টুঙ্গিপাড়া থানা পুলিশ জিয়াকে টেকনাফ থানা পুলিশ নিয়ে গেছে বলে উল্লেখ করলেও টেকনাফ থানা পুলিশ এটি অস্বীকার করে আসছিল। এর একদিন এক রাত শেষ না হতেই জিয়ার গুলিবিদ্ধ মরদেহ পাওয়া গেল। এতে পুরো পরিবারে উৎকন্ঠা ও শোক বিরাজ করছে। আর স্থানীয়রা বলাবলি করছেন ইয়াবা কারবারিরা বাঁচতে ধর্মীয় লেবাস ধরলেও শেষ রক্ষা হচ্ছে না।

শেয়ার করুন




গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে বিধি মোতাবেক আবেদিত
Design & Developed BY ThemesBazar.Com