January 19, 2022, 12:11 pm

শিরোনাম :
মুন্সীগঞ্জ‌ে মিরকা‌দিম পৌরবাসীরা কি স্বাস্থ্য সম্মত গরুর মাংস খাচ্ছে? জ্বালানি থেকে বাড়তি টাকা তুলে সড়ক সংস্কার করা হবে নাসিকে ভোটযুদ্ধ আজ ॥ নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা গোটা নির্বাচনী এলাকা বাংলাদেশ থেকে দ্বিগুণ ইন্টারনেট ব্যান্ডউইডথ নেবে ভারত হটলাইনে চার মিনিটেই পর্চা-মৌজা ম্যাপের আবেদন শৈলকুপায় সামাজিক আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে যুবকে পিটিয়ে হত্যা নির্বাচনী সহিংসতায় আহত ব্যক্তির মৃত্যু ঝিনাইদহের শৈলকুপায় নির্বাচনি সহিংসতায় নিহত ৬ লামার কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনে সাড়ে তিন হাজার কন্ঠে উচ্চারিত ‘ইনশাল্লাহ সব সম্ভব’ শত্রুতার আগুনে পুড়ে পুড়ল ৮ দোকান নাইক্ষ্যংছড়ি পাহাড় থেকে অস্ত্র-গুলিসহ ৪ রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী গ্রেপ্তার
Uncategorized
লোকচক্ষুর আড়ালে থাকা আলীকদম উপজেলার সৌন্দর্যময় ঝর্ণা “দামতুয়া”

লোকচক্ষুর আড়ালে থাকা আলীকদম উপজেলার সৌন্দর্যময় ঝর্ণা “দামতুয়া”

হিল্লোল দত্ত,আলীকদম প্রতিনিধি :

আলীকদম উপজেলার অন্তর্গত আলীকদম-থানচি সড়কের ১৭ কিলোতে অবস্থিত “দামতুয়া” ঝর্ণা। লোক চক্ষুর অাড়ালে থাকা তিন পার্বত্য জেলায় সব চেয়ে বড় প্রাকৃতিক ঝর্না দামতুয়া। ২০১৫ সালে সর্বপ্রথম জনসম্মুখে আসে এ ঝর্ণাটি তারপর থেকে দলে দলে স্থানীয় লোকজন ছুটে যায় দামতুয়ার সাদা জলের টানে।

বর্ষাকাল শেষ না হতেই পর্যটকদের পদভারে আন্দোলিত হতে থাকে দামতুয়ার জল। দূর্গম পাহাড় ও পাহাড়ি ঝিরি পার হয়ে দামতুয়া ঝর্ণায় যেতে সময় লাগে পায়ে হেটে দুই ঘন্টা। ঝিরির বুকে বিশাল বিশাল পাথর এবং পাহাড়ের জুম চাষ পর্যটক ও ভ্রমণ পিপাসু মানুষের মনে এনে দেয় আনন্দের নতুন মাত্রা।

একপাশে খাড়া পাথরের পাহাড় বেয়ে নেমে আসে জল রাশি অন্যদিকে পাহাড়ের বুকচিড়ে নেমে আসে ঝর্ণার জল। প্রায় ৬ মিটার প্রস্ত দামতুয়া ঝর্ণার স্থানীয় নাম “তুঘ-ধামতুয়া” ঝর্নাটির বিশেষ বিশেষত্ব মুল ঝর্না থেকে ৩০০ফিট দূরত্বের মধ্যে অবস্থিত জলপ্রাত। প্রায় ১৫ মিটার চওড়া এ জলপ্রপাতটি খাচকাটা কঠিন ঢেউ খেলানো শিলার মধ্যে প্রচন্ড পানির স্রোতে সংখ্যাতিত ঢেউ তৈরি করে।

ঝর্নাটির সার্বিক উন্নয়ন সংগঠিত হলে আলীকদম ও থানচি উপজেলার পর্যটন খাতে নতুন সম্ভবনার দ্বার উন্মোচন হবে বলে মনে করেন এলাকাবাসি ও ঝর্না দেখতে যাওয়া স্হানীয় লোকেরা।

গত সোমবার ২৭ আগস্ট আলীকদম উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাজিমুল হায়দার ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবুল কালাম দামতুয়া ঝর্ণা পরিদর্শন করেন।

এসময় আলীকদম উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবুল কালাম বলেন, আলীকদম উপজেলায় অনতিদূরে অবস্থিত দামতুয়া ঝর্ণায় আমার প্রথম আসা। আসার রাস্তা বেশ সুবিধা জনক না হওয়ায় বেশ কষ্টসাধ্য। অতিশীঘ্রই এ ঝর্ণার উন্নয়নের লক্ষে চারহাত (৬ ফিট) প্রশস্ত রাস্তা তৈরি করা দেয়া হবে বলে তিনি জানান প্রেস টিভিকে।

পরিদর্শন কালে ইউএনও নাজিমুল হায়দার বলেন, প্রকৃতির যজ্ঞপুরে লুকিয়ে থাকা দামতুয়া ঝর্ণা অত্যান্ত সুন্দর ও বিশাল। এটিই তিন পার্বত্য জেলার সবচেয়ে বড় ঝর্ণা। কিন্তু দূর্গম ও যাতায়াত ব্যবস্থার তেমন সুযোগ না থাকায় দেশি বিদেশি পর্যটক আকর্ষনে আমরা কিছুটা ব্যর্থ বলে মনে করি।

তিনি আরো বলেন, বর্তমান সরকার সারাদেশের ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা বিভিন্ন দর্শনীয় স্থান সমুহের উন্নয়নে সদা সচেষ্ট। আলীকদম উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে দামতুয়া ঝর্ণার উন্নয়নের লক্ষ্যে সার্বিক ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

শেয়ার করুন




গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে বিধি মোতাবেক আবেদিত
Design & Developed BY ThemesBazar.Com